অবশেষে obosheshe [ কবিতা ] -রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

অবশেষে

-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

কাব্যগ্রন্থ : সানাই [ ১৯৪০ ]

কবিতার শিরনামঃ অব’শেষে 

অবশেষে obosheshe [ কবিতা ] -রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর
রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর [ Rabindranath Tagore ]

অবশেষে obosheshe [ কবিতা ] -রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

যৌবনের অনাহূত রবাহূত ভিড়-করা ভোজে

          কে ছিল কাহার খোঁজে,

     ভালো করে মনে ছিল না তা।

          ক্ষণে ক্ষণে হয়েছে আসন পাতা,

               ক্ষণে ক্ষণে নিয়েছে সরায়ে।

মালা কেহ গিয়েছে পরায়ে

     জেনেছিনু, তবু কে যে জানি নাই তারে।

          মাঝখানে বারে বারে

               কত কী যে এলোমেলো

          কভু গেল, কভু এল।

     সার্থকতা ছিল যেইখানে

ক্ষণিক পরশি তারে চলে গেছি জনতার টানে।

          সে যৌবনমধ্যাহ্নের অজস্রের পালা

শেষ হয়ে গেছে আজি, সন্ধ্যার প্রদীপ হল জ্বালা।

     অনেকের মাঝে যারে কাছে দেখে হয় নাই দেখা

               একেলার ঘরে তারে একা

     চেয়ে দেখি, কথা কই চুপে চুপে,

        পাই তারে না-পাওয়ার রূপে।

 

হে হিমাদ্রি, দেবতাত্মা he himadri debotatma [ কবিতা ] - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর
রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর-[ Rabindranath Tagore ]

আরও দেখুনঃ 

Amar Rabindranath Logo

মন্তব্য করুন