দূরের বন্ধু সুরের , প্রেম ৩১৮ | Durer bondhu shurer

দূরের বন্ধু সুরের , প্রেম ৩১৮ | Durer bondhu shurer  রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর এফআরএএস (৭ মে ১৮৬১ – ৭ আগস্ট ১৯৪১; ২৫ বৈশাখ ১২৬৮ – ২২ শ্রাবণ ১৩৪৮ বঙ্গাব্দ) ছিলেন অগ্রণী বাঙালি কবি, ঔপন্যাসিক, সংগীতস্রষ্টা, নাট্যকার, চিত্রকর, ছোটগল্পকার, প্রাবন্ধিক, অভিনেতা, কণ্ঠশিল্পী ও দার্শনিক।তাকে বাংলা ভাষার সর্বশ্রেষ্ঠ সাহিত্যিক মনে করা হয়।

 

দূরের বন্ধু সুরের , প্রেম ৩১৮ | Durer bondhu shurer

রাগ: কালাংড়া

তাল: দাদরা

রচনাকাল (বঙ্গাব্দ): ৪ আশ্বিন, ১৩৪১

রচনাকাল (খৃষ্টাব্দ): ২১ সেপ্টেম্বর, ১৯৩৪

 

দূরের বন্ধু সুরের , প্রেম ৩১৮ | Durer bondhu shurer
রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর [ Rabindranath Tagore ]

দূরের বন্ধু সুরের:

দূরের বন্ধু সুরের দূতীরে পাঠালো তোমার ঘরে।

মিলনবীণা যে হৃদয়ের মাঝে বাজে তব অগোচরে॥

মনের কথাটি গোপনে গোপনে বাতাসে বাতাসে ভেসে আসে মনে,

বনে উপবনে, বকুলশাখার চঞ্চলতায় মর্মরে মর্মরে॥

পুষ্পমালার পরশপুলক পেয়েছ বক্ষতলে,

রাখো তুমি তারে সিক্ত করিয়া সুখের অশ্রুজলে।

ধরো সাহানাতে মিলনের পালা, সাজাও যতনে বরণের ডালা–

মালতীর মালা, অঞ্চলে ঢেকে কনকপ্রদীপ আনো আনো তার পথ-‘পরে॥

 

দূরের বন্ধু সুরের , প্রেম ৩১৮ | Durer bondhu shurer
রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর [ Rabindranath Tagore ]

১৮৭৮ সালে মাত্র সতেরো বছর বয়সে রবীন্দ্রনাথ প্রথমবার ইংল্যান্ডে যান।১৮৮৩ সালে মৃণালিনী দেবীর সঙ্গে তার বিবাহ হয়। ১৮৯০ সাল থেকে রবীন্দ্রনাথ পূর্ববঙ্গের শিলাইদহের জমিদারি এস্টেটে বসবাস শুরু করেন।

 

১৯০১ সালে তিনি পশ্চিমবঙ্গের শান্তিনিকেতনে ব্রহ্মচর্যাশ্রম প্রতিষ্ঠা করেন এবং সেখানেই পাকাপাকিভাবে বসবাস শুরু করেন। ১৯০২ সালে তার পত্নীবিয়োগ হয়। ১৯০৫ সালে তিনি বঙ্গভঙ্গ-বিরোধী আন্দোলনে জড়িয়ে পড়েন। ১৯১৫ সালে ব্রিটিশ সরকার তাকে ‘নাইট’ উপাধিতে ভূষিত করেন।কিন্তু ১৯১৯ সালে জালিয়ানওয়ালাবাগ হত্যাকাণ্ডের প্রতিবাদে তিনি সেই উপাধি ত্যাগ করেন।

 

দূরের বন্ধু সুরের , প্রেম ৩১৮ | Durer bondhu shurer
রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর [ Rabindranath Tagore ]
আরও দেখুনঃ

মন্তব্য করুন