পরিচয় কবিতা | poricoy kobita | সেঁজুতি কাব্যগ্রন্থ | রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

পরিচয় কবিতাটি [ poricoy kobita ] কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর এর সেঁজুতি-কাব্যগ্রন্থের অংশ।

পরিচয়

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর 

কাব্যগ্রন্থের নামঃ সেঁজুতি

কবিতার নামঃ পরিচয়

 

পরিচয় কবিতা | poricoy kobita | সেঁজুতি কাব্যগ্রন্থ | রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর
Rabindranath Tagore

 

পরিচয় কবিতা | poricoy kobita | সেঁজুতি-কাব্যগ্রন্থ | রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

একদিন তরীখানা থেমেছিল এই ঘাটে লেগে,

         বসন্তের নূতন হাওয়ার বেগে।

      তোমরা শুধায়েছিলে মোরে ডাকি

         পরিচয় কোনো আছে নাকি,

                   যাবে কোন্‌খানে।

         আমি শুধু বলেছি, কে জানে।

নদীতে লাগিল দোলা, বাঁধনে পড়িল টান,

         একা বসে গাহিলাম যৌবনের বেদনার গান।

                   সেই গান শুনি

         কুসুমিত তরুতলে তরুণতরুণী

                   তুলিল অশোক,

মোর হাতে দিয়ে তারা কহিল, “এ আমাদেরই লোক।’

                   আর কিছু নয়,

         সে মোর প্রথম পরিচয়।

 

পরিচয় কবিতা | poricoy kobita | সেঁজুতি কাব্যগ্রন্থ | রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর
Rabindranath Tagore

         তার পরে জোয়ারের বেলা

সাঙ্গ হল, সাঙ্গ হল তরঙ্গের খেলা;

         কোকিলের ক্লান্ত গানে

বিস্মৃত দিনের কথা অকস্মাৎ যেন মনে আনে;

         কনকচাঁপার দল পড়ে ঝুরে,

                   ভেসে যায় দূরে–

         ফাল্গুনের উৎসবরাতির

                   নিমন্ত্রণলিখন-পাঁতির

                            ছিন্ন অংশ তারা

                                  অর্থহারা।

         ভাঁটার গভীর টানে

তরীখানা ভেসে যায় সমুদ্রের পানে।

 

পরিচয় poricoy [ কবিতা ] -রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর
Rabindranath Tagore

         নূতন কালের নব যাত্রী ছেলেমেয়ে

                   শুধাইছে দূর হতে চেয়ে,

         “সন্ধ্যার তারার দিকে

                   বহিয়া চলেছে তরণী কে।’

         সেতারেতে বাঁধিলাম তার,

                   গাহিলাম আরবার–

         মোর নাম এই বলে খ্যাত হোক,

                   আমি তোমাদেরই লোক

                            আর কিছু নয়,

                        এই হোক শেষ পরিচয়।

আরও দেখুনঃ 

Amar Rabindranath Logo

মন্তব্য করুন