বন্দী কবিতা [ Bondi Kobita ] – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

বন্দী কবিতা [ Bondi Kobita ]

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

কাব্যগ্রন্থ : খেয়া [ ১৯০৬ ]

কবিতার শিরনামঃ ব’ন্দী 

বন্দী bondi [ কবিতা ] -রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর
রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর [ Rabindranath Tagore ]

বন্দী কবিতা [ Bondi Kobita ] – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

“ব’ন্দী, তোরে কে বেঁধেছে

           এত কঠিন ক’রে।’

প্রভু আমায় বেঁধেছে যে

           বজ্রকঠিন ডোরে।

মনে ছিল সবার চেয়ে

           আমিই হব বড়ো,

রাজার কড়ি করেছিলেম

           নিজের ঘরে জড়ো।

ঘুম লাগিতে শুয়েছিলেম

           প্রভুর শয্যা পেতে,

জেগে দেখি বাঁধা আছি

           আপন ভাণ্ডারেতে।

“ব’ন্দী ওগো, কে গড়েছে

           বজ্রবাঁধনখানি।’

 

সংসার সাজায়ে তুমি আছিলে রমণী songsar sajaye tumi achhile romoni [ কবিতা ]- রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর
রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর [ Rabindranath Tagore ]

আপনি আমি গড়েছিলেম

           বহু যতন মানি।

ভেবেছিলেম আমার প্রতাপ

           করবে জগৎ গ্রাস,

আমি রব একলা স্বাধীন,

           সবাই হবে দাস।

তাই গড়েছি রজনীদিন

           লোহার শিকলখানা–

কত আগুন কত আঘাত

           নাইকো তার ঠিকানা।

গড়া যখন শেষ হয়েছে

           কঠিন সুকঠোর,

দেখি আমায় ব’ন্দী করে

           আমারি এই ডোর।

আরও দেখুনঃ

Amar Rabindranath Logo

মন্তব্য করুন