বিদায় কবিতা চৈতালী। biday kobita । চৈতালী কাব্যগ্রন্থ । রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

বিদায় কবিতা চৈতালী [ biday kobita ] টি কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর এর চৈতালী-কাব্যগ্রন্থের অংশ। এতে সর্বমোট ৭৮টি কবিতা রয়েছে। এটি রবীন্দ্রনাথের কাব্য রচনার “চিত্রা-চৈতালি পর্ব”-এর অন্তর্গত একটি উল্লেখযোগ্য সৃষ্টি।

কাব্যগ্রন্থের নামঃ চৈতালী

কবিতার নামঃ বিদায়

বিদায় কবিতা চৈতালী। biday kobita । চৈতালী কাব্যগ্রন্থ । রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর
রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর [ Rabindra nath tagore ]

বিদায় কবিতা চৈতালী। biday kobita । চৈতালী কাব্যগ্রন্থ । রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

বিদায়

বিদায় দেহো, ক্ষম আমায় ভাই।

  কাজের পথে আমি তো আর নাই।

       এগিয়ে সবে যাও-না দলে দলে,

       জয়মাল্য লও-না তুলি গলে,

       আমি এখন বনচ্ছায়াতলে

            অলক্ষিতে পিছিয়ে যেতে চাই।

            তোমরা মোরে ডাক দিয়ো না ভাই।

বিদায় কবিতা চৈতালী। biday kobita । চৈতালী কাব্যগ্রন্থ । রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর
রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর [ Rabindranath Tagore ]

  অনেক দূরে এলেম সাথে সাথে,

  চলেছিলেম সবাই হাতে হাতে।

       এইখানেতে  দুটি পথের মোড়ে

       হিয়া আমার উঠল কেমন করে

       জানি নে কোন্‌ ফুলের গন্ধ-ঘোরে

            সৃষ্টিছাড়া ব্যাকুল বেদনাতে।

            আর তো চলা হয় না সাথে সাথে।

বিদায় কবিতা চৈতালী। biday kobita । চৈতালী কাব্যগ্রন্থ । রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

  তোমরা আজি ছুটেছ যার পাছে

  সে-সব মিছে হয়েছে মোর কাছে–

       রত্ন খোঁজা, রাজ্য ভাঙা-গড়া,

       মতের লাগি দেশ-বিদেশে লড়া,

       আলবালে জলসেচন করা

            উচ্চশাখা স্বর্ণচাঁপার গাছে।

            পারি নে আর চলতে সবার পাছে।

বিদায় কবিতা চৈতালী। biday kobita । চৈতালী কাব্যগ্রন্থ । রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর
রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর [ Rabindranath Tagore ]

  আকাশ ছেয়ে মন-ভোলানো হাসি

  আমার প্রাণে বাজালো আজ বাঁশি।

       লাগল আলস পথে চলার মাঝে,

       হঠাৎ বাধা পড়ল সকল কাজে,

               একটি কথা পরান জুড়ে বাজে

            “ভালোবাসি, হায় রে ভালোবাসি’–

            সবার বড়ো হৃদয়-হরা হাসি।

বিদায় কবিতা চৈতালী। biday kobita । চৈতালী কাব্যগ্রন্থ । রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর
রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর [ Rabindranath Tagore ]

  তোমরা তবে বি-দায় দেহো মোরে–

  অকাজ আমি নিয়েছি সাধ করে।

       মেঘের পথের পথিক আমি আজি

       হাওয়ার মুখে চলে যেতেই রাজি,

       অকূল-ভাসা তরীর আমি মাঝি

            বেড়াই ঘুরে অকারণের ঘোরে।

            তোমরা সবে বি-দায় দেহো মোরে।

বিদায় কবিতা চৈতালী। biday kobita । চৈতালী কাব্যগ্রন্থ । রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

আরও দেখুনঃ 

মন্তব্য করুন