ভার কবিতা [ Bhar Kobita ] – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

ভার কবিতা [ Bhar Kobita ]

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

কাব্যগ্রন্থ : খেয়া [ ১৯০৬ ]

কবিতার শিরনামঃ ভার 

ভার bhar [ কবিতা ] -রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর
রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর [ Rabindranath Tagore ]

ভার কবিতা [ Bhar Kobita ] – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

 তুমি যত ভা’র দিয়েছ সে ভা’র

           করিয়া দিয়েছ সোজা,

    আমি যত ভা’র জমিয়ে তুলেছি

           সকলি হয়েছে বোঝা।

    এ বোঝা আমার নামাও বন্ধু,

                   নামাও–

    ভা’রের বেগেতে চলেছি, আমার

           এ যাত্রা তুমি থামাও।

    যে তোমার ভা’র বহে কভু তার

           সে ভা’রে ঢাকে না আঁখি,

    পথে বাহিরিলে জগৎ তারে তো

           দেয় না কিছুই ফাঁকি।

    অবারিত আলো ধরে আসি তার

                হাতে–

    বনে পাখি গায়, নদীধারা ধায়,

           চলে সে সবার সাথে।

    তুমি কাজ দিলে কাজেরই সঙ্গে

           দাও যে অসীম ছুটি,

    তোমার আদেশ আবরণ হয়ে

           আকাশ লয় না লুটি।

    বাসনায় মোরা বিশ্বজগৎ

                ঢাকি–

 

ভালো তুমি বেসেছিলে এই শ্যাম ধরা bhalo tumi besechhile ei shyam dhora [ কবিতা ] - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর
রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর [ Rabindranath Tagore ]

    তোমা-পানে চেয়ে যত করি ভোগ

           তত আরো থাকে বাকি।

    আপনি যে দুখ ডেকে আনি সে যে

           জ্বালায় বজ্রানলে–

    অঙ্গার করে রেখে যায়, সেথা

           কোনো ফল নাহি ফলে।

    তুমি যাহা দাও সে যে দুঃখের

                 দান,

    শ্রাবণধারায় বেদনার রসে

           সার্থক করে প্রাণ।

    যেখানে যা-কিছু পেয়েছি কেবলি

           সকলি করেছি জমা–

               যে দেখে সে আজ মাগে যে হিসাব,

           কেহ নাহি করে ক্ষমা।

    এ বোঝা আমার নামাও বন্ধু,

           নামাও।

    ভা’রের বেগেতে ঠেলিয়া চলেছে,

           এ যাত্রা মোর থামাও।

আরও দেখুনঃ 

Amar Rabindranath Logo

মন্তব্য করুন