মনে যে আশা , প্রেম ৩৬৬ | Mone je asha

মনে যে আশা , প্রেম ৩৬৬ | Mone je asha  রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর এফআরএএস (৭ মে ১৮৬১ – ৭ আগস্ট ১৯৪১; ২৫ বৈশাখ ১২৬৮ – ২২ শ্রাবণ ১৩৪৮ বঙ্গাব্দ) ছিলেন অগ্রণী বাঙালি কবি, ঔপন্যাসিক, সংগীতস্রষ্টা, নাট্যকার, চিত্রকর, ছোটগল্পকার, প্রাবন্ধিক, অভিনেতা, কণ্ঠশিল্পী ও দার্শনিক।

মনে যে আশা , প্রেম ৩৬৬ | Mone je asha

রাগ: ইমনকল্যাণ

তাল: ত্রিতাল

রচনাকাল (বঙ্গাব্দ): ১৩০০

 

মনে যে আশা , প্রেম ৩৬৬ | Mone je asha
রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর [ Rabindranath Tagore ]

মনে যে আশা:

মনে যে আশা লয়ে এসেছি হল না, হল না হে।

ওই মুখপানে চেয়ে ফিরিনু লুকাতে আঁখিজল,

বেদনা রহিল মনে মনে॥

তুমি কেন হেসে চাও, হেসে যাও হে, আমি কেন কেঁদে ফিরি–

কেন আমি কম্পিত হৃদয়খানি, কেন যাও দূরে না দেখে॥

 

মনে যে আশা , প্রেম ৩৬৬ | Mone je asha
রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর [ Rabindranath Tagore ]

১৮৭৮ সালে মাত্র সতেরো বছর বয়সে রবীন্দ্রনাথ প্রথমবার ইংল্যান্ডে যান।১৮৮৩ সালে মৃণালিনী দেবীর সঙ্গে তার বিবাহ হয়। ১৮৯০ সাল থেকে রবীন্দ্রনাথ পূর্ববঙ্গের শিলাইদহের জমিদারি এস্টেটে বসবাস শুরু করেন।

১৯০১ সালে তিনি পশ্চিমবঙ্গের শান্তিনিকেতনে ব্রহ্মচর্যাশ্রম প্রতিষ্ঠা করেন এবং সেখানেই পাকাপাকিভাবে বসবাস শুরু করেন। ১৯০২ সালে তার পত্নীবিয়োগ হয়। ১৯০৫ সালে তিনি বঙ্গভঙ্গ-বিরোধী আন্দোলনে জড়িয়ে পড়েন। ১৯১৫ সালে ব্রিটিশ সরকার তাকে ‘নাইট’ উপাধিতে ভূষিত করেন।কিন্তু ১৯১৯ সালে জালিয়ানওয়ালাবাগ হত্যাকাণ্ডের প্রতিবাদে তিনি সেই উপাধি ত্যাগ করেন।১৯২১ সালে গ্রামোন্নয়নের জন্য তিনি শ্রীনিকেতন নামে একটি সংস্থা প্রতিষ্ঠা করেন।১৯২৩ সালে আনুষ্ঠানিকভাবে বিশ্বভারতী প্রতিষ্ঠিত হয়। দীর্ঘজীবনে তিনি বহুবার বিদেশ ভ্রমণ করেন এবং সমগ্র বিশ্বে বিশ্বভ্রাতৃত্বের বাণী প্রচার করেন।

 

মনে যে আশা , প্রেম ৩৬৬ | Mone je asha
রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর [ Rabindranath Tagore ]
আরও দেখুন :

মন্তব্য করুন