হৃদয়শশী হৃদিগগনে , পূজা ৫২৩ | Hridoysoshi hridigogone

হৃদয়শশী হৃদিগগনে , পূজা ৫২৩ | Hridoysoshi hridigogone  রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর এফআরএএস (৭ মে ১৮৬১ – ৭ আগস্ট ১৯৪১; ২৫ বৈশাখ ১২৬৮ – ২২ শ্রাবণ ১৩৪৮ বঙ্গাব্দ) ছিলেন অগ্রণী বাঙালি কবি, ঔপন্যাসিক, সংগীতস্রষ্টা, নাট্যকার, চিত্রকর, ছোটগল্পকার, প্রাবন্ধিক, অভিনেতা, কণ্ঠশিল্পী ও দার্শনিক।

 

হৃদয়শশী হৃদিগগনে , পূজা ৫২৩ | Hridoysoshi hridigogone

রাগ: ইমনকল্যাণ

তাল: একতাল

রচনাকাল (বঙ্গাব্দ): ২৯ কার্তিক, ১৩০২

 

হৃদয়শশী হৃদিগগনে , পূজা ৫২৩ | Hridoysoshi hridigogone
রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর [ Rabindranath Tagore ]

হৃদয়শশী হৃদিগগনে:

 

হৃদয়শশী হৃদিগগনে উদিল মঙ্গললগনে,

নিখিল সুন্দর ভুবনে একি এ মহামধুরিমা ॥

ডুবিল কোথা দুখ সুখ রে অপার শান্তির সাগরে,

বাহিরে অন্তরে জাগে রে শুধুই সুধাপুরনিমা ॥

গভীর সঙ্গীত দ্যুলোকে ধ্বনিছে গম্ভীর পুলকে,

গগন-অঙ্গন-আলোকে উদার দীপদীপ্তিমা।

চিত্তমাঝে কোন্‌ যন্ত্রে কী গান মধুময় মন্ত্রে

বাজে রে অপরূপ তন্ত্রে, প্রেমের কোথা পরিসীমা ॥

 

হৃদয়শশী হৃদিগগনে , পূজা ৫২৩ | Hridoysoshi hridigogone
রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর [ Rabindranath Tagore ]

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর কলকাতার এক ধনাঢ্য ও সংস্কৃতিবান ব্রাহ্ম পিরালী ব্রাহ্মণ পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন।বাল্যকালে প্রথাগত বিদ্যালয়-শিক্ষা তিনি গ্রহণ করেননি; গৃহশিক্ষক রেখে বাড়িতেই তার শিক্ষার ব্যবস্থা করা হয়েছিল।আট বছর বয়সে তিনি কবিতা লেখা শুরু করেন।১৮৭৪ সালে তত্ত্ববোধিনী পত্রিকা-এ তার “অভিলাষ” কবিতাটি প্রকাশিত হয়। এটিই ছিল তার প্রথম প্রকাশিত রচনা।

 

১৯০৫ সালে তিনি বঙ্গভঙ্গ-বিরোধী আন্দোলনে জড়িয়ে পড়েন। ১৯১৫ সালে ব্রিটিশ সরকার তাকে ‘নাইট’ উপাধিতে ভূষিত করেন।কিন্তু ১৯১৯ সালে জালিয়ানওয়ালাবাগ হত্যাকাণ্ডের প্রতিবাদে তিনি সেই উপাধি ত্যাগ করেন।১৯২১ সালে গ্রামোন্নয়নের জন্য তিনি শ্রীনিকেতন নামে একটি সংস্থা প্রতিষ্ঠা করেন।১৯২৩ সালে আনুষ্ঠানিকভাবে বিশ্বভারতী প্রতিষ্ঠিত হয়। দীর্ঘজীবনে তিনি বহুবার বিদেশ ভ্রমণ করেন এবং সমগ্র বিশ্বে বিশ্বভ্রাতৃত্বের বাণী প্রচার করেন।১৯৪১ সালে দীর্ঘ রোগভোগের পর কলকাতার পৈত্রিক বাসভবনেই তার মৃত্যু হয়।

 

হৃদয়শশী হৃদিগগনে , পূজা ৫২৩ | Hridoysoshi hridigogone
রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর [ Rabindranath Tagore ]
আরও দেখুনঃ

মন্তব্য করুন