পুঁটু কবিতা । putu Kobita | চৈতালী কাব্যগ্রন্থ | রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

পুঁটু কবিতাটি [ putu kobita ] কবি গুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর এর চৈতালী কাব্যগ্রন্থের অংশ।

কাব্যগ্রন্থের নামঃ চৈতালী

কবিতার নামঃ পুঁটু

পুঁটু putu [ কবিতা ] রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর
রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর [ Rabindranath Tagore ]

পুঁটু কবিতা । putu Kobita | চৈতালী কাব্যগ্রন্থ | রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

চৈত্রের  মধ্যাহ্নবেলা কাটিতে না চাহে।

তৃষাতুরা বসুন্ধরা দিবসের দাহে।

হেনকালে শুনিলাম বাহিরে কোথায়

কে ডাকিল দূর হতে।, “পুঁ-টুরানী, আয়!”

জনশূন্য নদীতটে তপ্ত দ্বিপ্রহরে

কৌতুহল জাগি উঠে স্নেহকণ্ঠস্বরে।

গ্রন্থখানি বন্ধ করি উঠিলাম ধীরে,

দুয়ার করিয়া ফাঁক দেখিনু বাহিরে।

দুর্ব্বোধ durbodh [ কবিতা ]- রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর
রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর [ Rabindranath Tagore ]

মহিষ বৃহৎকায় কাদামাখা গায়ে

স্নিগ্ধনেত্রে নদীতীরে রয়েছে দাঁড়ায়ে।

যুবক নামিয়া জলে ডাকিছে তাহায়

স্নান করাবার তরে, “পুঁ-টুরানী, আয়!”

হেরি সে যুবারে–হেরি পুঁ-টুরানী তারি

মিশিল কৌতুকে মোর স্নিগ্ধ সুধাবারি।

আরও দেখুনঃ

যোগাযোগ

মন্তব্য করুন